১০ অক্টোবর জগন্নাথপুর পৌর উপ-নির্বাচন, সক্রিয় প্রার্থীরা  

১০ অক্টোবর জগন্নাথপুর পৌর উপ-নির্বাচন, সক্রিয় প্রার্থীরা  

তাজউদ্দীন আহমদ, বিশেষ প্রতিনিধি : 


জগন্নাথপুর পৌরসভার উপনির্বাচন কে সামনে রেখে প্রার্থীদের আবারও দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়ে গেছে। নির্বাচন কমিশন স্হগিত হওয়া উপ নির্বাচনের তারিখ ঘোষনা করার সাথে সাথেই প্রার্থীরা সক্রিয় হয়ে উঠেছেন। দলীয়ভাবে যারা প্রতিক পেয়ে নির্বাচন করছেন-  তারা নেতা কর্মীদের সঙ্ঘবদ্ধ করে মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আর রাজনৈতিক পরিচয় থাকা সত্বে যারা সতন্ত্র প্রার্থী তারাও বসে নেই। এক কথায় নানা কলা কৌশল অবলম্বন করে নেতা কর্মীর সানিধ্যতা ছাড়াও ভোটাদের খোঁজখবর নিচ্ছেন। প্রবাসীদের মাধ্যমে স্বজনদের ভোট প্রদানের জন্যও চেষ্টা করে যাচ্ছেন।


২০১৫ সালে জগন্নাথপুর পৌরসভার প্রথমবরের মত দলীয় প্রতিকে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে সাবেক পৌর মেয়র হাজী আব্দুল মনাফ (নৌকা) বিপুল ভোটে বিজয়ী হন। গত ডিসেম্বর মাসে মেয়র মৃত্যুবরণ করলে জানুয়ারি মাসের শেষ দিকে ২৯ মার্চ উপ নির্বাচনের তারিখ নির্বাচন কমিশনার ঘোষণা করে। এ সময উপ নির্বাচনে অংশ নেওয়া  দলীয় প্রার্থীরা হলেন  আওয়ামীলীগের সাবেক পৌর চেয়ারম্যান মিজানুর রশীদ ভুইয়া (নৌকা), বিএনপির রাজু আহমদ (ধানের শীষ)সতন্ত্র  হিসাবে একই দলের  সাবেক কৃতি ফুটবলার আবিবুল বারী আয়হান (মোবাইল), প্রয়াত মেয়র হাজি আব্দুলম নাফের পুত্র যুক্তরাজ্য প্রবাসী  আবুল হোসাইন সেলিম (জগ)।

কিন্তুু বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস  দেখা দিলে এর প্রভাব দেশ জুড়ে  বিস্তার ঘটে। ফলে নির্বাচন কমিশন পৌর নির্বাচন স্হগিত  করে। দীর্ঘ  দিন স্হগিত  থাকার পর আবার স্হগিত  হওয়া পৌর-উপনির্বাচন  আগামী মাসের ১০ অক্টোবর ঘোষনা করা হয়েছে।

সাবেক পৌর চেয়ারম্যান ও যুগ্নসম্পাক উপজেলা  আওয়ামীলীগের  মিজানুর রশীদ ভুঁইয়া  জানান, রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান  হিসাবে নয় জনপ্রতিনিধি  হিসাবেও মানুষের পাশে ছিলাম আছি, থাকব। নৌকা মাঝি হযে জনগনের ও পৌরসভার উন্নয়ন করতে চাই।  ।

সাবেক ছাত্রদলনেতা  প্রবাসী  বিএনপি নেতা  রাজু আহমদ (ধানের শীষ) জানান, নিরপেক্ষতা  স্হানীয প্রশাসনে  থাকে এবং লেভেল  প্লেনিং মাঠ হয়। সরকার কোন হস্তক্ষেপ করেনা তাহলে ধানের শীষের জয় হবে। 

বিএনপিনেতা সতন্ত্র প্রার্থী  সাবেক কৃতি ফুটবলার আবিবুল বারী  আয়হান জানান, পৌরবাসীর উন্নয়নে নিজেকে সম্পৃক্ত করার জন্য নির্বাচন করছি। জনগনের কল্যাণকর কাজে নিয়োজিত আছি, থাকব।  
প্রয়াত  হাজি আব্দুল মনাফ  মেয়রপুত্র  প্রবাসী স্বতন্ত্র প্রার্থী  আবুল  হোসাইন  সেলিম জানান-  বাবার অসমাপ্ত উন্নয়ন কাজ এবং পৌরসভাকে মডেল পৌরসভার  করার জন্য প্রার্থী হয়েছি।

প্রসঙ্গত  ১৯৯৯ সালে জগন্নাথপুর পৌরসভা গঠন হয়। পৌরপ্রশাসক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান  আব্দুল মুকিত নিযুক্ত  হন। ২০০০সালে প্রথম পৌর নির্বাচন অনুষ্টিত  হলে বিপুল ভোটে পৌর চেয়ারম্যান  নির্বাচিত  হন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান  উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হারুনুর রশীদ হিরন মিয়া।