শকুনের সহোদর

শকুনের সহোদর

শকুনের সহোদর

মো হা ম্ম দ  হ র মু জ  আ লী 

এখানেও জীবনের উত্তাপ ছিলো 
পাখির কাকলি ছিলো
নুপুরের ঝংকার ছিলো
ধুলোমাখা পথে দুরন্ত কিশোরীর আলতাপরা পায়ের ছাপে
আনন্দ-বিষাদের মাখামাখি ছিলো।

সেই একাত্তরেও, পুরুষ বিহীন গাঁয়ে
নুনপান্তা ভাগাভাগি করেছে একে অপরে
ভয় যেমন ছিলো স্বপ্নও ছিলো সমান্তরাল;
অজানা আতংকে ফিসফিসানি ছিলো 
তবুও নির্বাক হয়ে যায়নি মানুষ।

হঠাৎ করে কেমন যেনো বদলে যাচ্ছে পরিপাশ
চোখের সামনে লুট হয়ে যাচ্ছে কিশোরীর সযতনে আলগে রাখা সোনালী সম্ভ্রম 
কিংবা ছিঁড়ে ফেলা হচ্ছে স্বামী পরিত্যক্তা বধুর স্বপ্নের বুনন
অথচ, লাঠি হাতে দাঁড়িয়ে যাচ্ছেনা বক্ষ প্রশারিত সাহসী যুবক
গগনবিদারী চিৎকারে কাঁপিয়ে দিচ্ছেনা আল্লাহর আরশ!

শুধু, দাঁড়িয়ে দেখছে শকুনের সহোদর দর্শক!

লন্ডন, ০৬ অক্টোবর ২০২০