আগল

আগল

আগল

মো হা ম্ম দ  হ র মু জ  আ লী

তুমি আগল ভেঙে এসো, আমি যমুনায় নিয়ে যাব
শাজাহানের মতো না-হেরেম না-তাজমহল
যমুনার কুলে কুটির বানাবো, ভালোবাসার পাতায়।
আগর শোভিত সন্ধায় তোমারতো নীড়ে ফেরার তাড়া নেই, 
চলোনা শামুকখোল পাখির মতো শামুক খুঁজে বেড়াই
আর ভাঙি আগলের মতো।

নারী তুমি, সংস্কারের বেড়ী অলংকার করে
পরে আছো সেই কতকাল থেকে - মুক ও বধির 
বুঝতেও দাওনা তোমার অভিলাষ
নাকি এ বদলারই আরেক ধরন!

মৃগয়া পত্র পল্লব আর গ্রন্থির আগুন
দেখো - ফাগুনও মুখ লুকায় শরমে,
তুমি চাইলেই হৃদকম্পন বাড়িয়ে দিতে পারো
আবার থামিয়েও দিতে পারো নিমেষে;
তবুও ঝেড়ে ফেলে দিচ্ছনা জিঞ্জির,
নিচ্ছনা তুলে বহ্নি হাতে পোড়াতে শৃঙ্খলের নোঙর। 

হলোতো অনেক পিছে পিছে পথচলা
সোমত্ত মেয়ে তুমি, ভয় কিসের তোমার
এবার সামনে এসো,
এসো প্রতিক্ষায় পিয়াসিত পরানে,
এসো আগল ভেঙে, এসো যমুনায়।